অনলাইন ইনকামওয়ার্ডপ্রেসব্লগার

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি? অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করুন

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করুনঃ বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তি উন্নয়নের ফলে মানুষ অনলাইন থেকে আয় করার সুযোগ পেয়েছে। এবং অনেকেই আছে যারা অনলাইন প্লাটফর্ম গুলো থেকে ভালো মানের টাকা উপার্জন করে এবং অনলাইনে ক্যারিয়ার হিসেবে গড়ে তুলেছে। সেই অনলাইন থেকে আয় করার একটি সেক্টর হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। আমাদের দেশের অনেক যুবক আছে যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করছে। তাই আজকে আমি আপনাদের জানানোর চেষ্টা করবো কিভাবে আফিলিয়েট মার্কেটিং করা হয়।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি

আমাদের মনে সর্বপ্রথম যে প্রশ্নটি আসে সেটা হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আসলে কি? একদম সহজ ভাবে বলতে গেলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল কোন বড় প্রতিষ্ঠানের পণ্য নিজের মাধ্যমে বিক্রি করে দেওয়ার ফলে সে প্রতিষ্ঠানটি নির্দিষ্ট পরিমাণের কমিশন প্রদান করে থাকে। অনলাইনে অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা তাদের পণ্য বিক্রয় করার জন্য এই সুবিধা টুকু রেখেছে আপনি চাইলেই নিজেই তাদের পণ্য বিক্রয় করে দেওয়ার মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এইভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করা যায়।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার উপায়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করাটা হয়তো আপনার কাছে অনেক সহজ মনে হচ্ছে কিন্তু ব্যাপারটা কিন্তু ততটা সহজ না। এই সেক্টরে ভালো কিছু করতে হলে অবশ্যই আপনার ধৈর্য ধরার মত মন মানসিকতা থাকতে হবে। আমাদের মাঝে অনেকেই আছে যারা বেশি ধৈর্য ধরতে পছন্দ করেন না তাদের কে বলতে চাই আপনার জন্য অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং না। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার জন্য যে দক্ষতাগুলো আপনার প্রয়োজন এবং যেগুলোর মাধ্যমে আয় করতে পারবেন তা জেনে নেওয়া যাক।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে?

আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে কিভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের কাজ করে এবং আমরা যখন কোন পণ্য বিক্রি করে দিব সেটি কিভাবে প্রতিষ্ঠানটি বুঝবে আমরা তাদের  কত পরিমাণ পন্য বিক্রি করে দিয়েছি। আপনি যে প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে সংযুক্ত হবেন সে প্রতিষ্ঠানগুলো আপনাকে একটি লিংক দিবে আর সেই লিঙ্কে ক্লিক করে কেউ যদি পণ্য ক্রয় করে তাহলে প্রতিষ্ঠান আপনাকে টাকা প্রদান করবে। আর অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হলে আপনার অবশ্যই মার্কেটিং বিষয়ে জ্ঞান থাকতে হবে।

ইউটিউব এ সফলতা পাওয়ার ৫ টি উপায়

কোন কোম্পানির গুলোর মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবো?

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার জন্য আমাদের প্রথমে বড় কোনো প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তিবদ্ধ হতে হবে। এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে সে বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম কি? অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার সুযোগ করে দিচ্ছে যে কোম্পানিগুলো তার নাম নিচে দেওয়া হল

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আরো অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। আপনি চাইলে সেইসব প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হতে পারেন। কিন্তু আমি যে প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম উল্লেখ করেছি এগুলো অনেক বড় প্রতিষ্ঠান এবং এ প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে কাজ করে খুব ভাল ফলাফল পাবেন আশা করি।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার মাধ্যম

নিশ্চয় এতক্ষণে আমরা বুঝে গিয়েছি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আসলে কি এবং কিভাবে কাজ করে। কিন্তু কিসের মাধ্যমে আমরা এই মার্কেটিং কার্যক্রম করব। আমাদের একটা কথা সবসময় মনে রাখতে হবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হলে মার্কেটিং বিষয়ে যথেষ্ট পরিমাণের জ্ঞান থাকতে হবে। আমি তিনটি বিষয়ে আলোচনা করবো যেগুলোর মাধ্যমে খুব ভালোভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন।

  • সোশ্যাল মিডিয়া
  • ইউটিউব
  • ওয়েবসাইট

এ তিনটি মাধ্যমে খুব ভালোভাবেই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন।

সোশ্যাল মিডিয়াঃ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া খুব ভালো একটি মাধ্যম। সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। তাই এই সংখ্যা কাজে লাগিয়ে কাজে লাগিয়ে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ আমরা সবাই জানে ফেসবুকের ব্যবহারকারী সংখ্যা কিন্তু অনেক বেশি এখান থেকে ট্রাফিক পাওয়া সম্ভবনা কিন্তু অনেক বেশি। আপনি যদি ফেসবুকে কোন পেজ বা গ্রুপ খুলে এর মেম্বার যদি একবার বাড়াতে পারেন তাহলে কাজ। সেই মেম্বার গুলো কাজে লাগে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন। আরো অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কাজে লাগে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা যায়।যেমনঃ টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি

ইউটিউবঃ আমরা সবাই জানি ভিডিও শেয়ার করার জন্য ইউটিউব খুব বড় একটি প্ল্যাটফর্ম। ইউটিউবে কোটি কোটি মানুষ ব্যবহার করে। আর আপনি যদি ইউটিউবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে চান তাহলে প্রথমে একটি চ্যানেল খুলতে হবে। চ্যানেলটি কষ্ট করে ভালো একটি পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। যদি একবার চ্যানেলটি ভালো অবস্থানে দাঁড় করানো চেষ্টা করতে হবে। তারপর আপনার চ্যানেলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর লিংক শেয়ার করে খুব সহজে ভালো মানের ট্রাফিক সংগ্রহ করতে পারবেন। তাই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার জন্য ইউটিউব খুব ভালো একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করে।

ওয়েবসাইটঃ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার জন্য ওয়েবসাইট কিন্তু খুব ভালো একটি মাধ্যম। কিছু টাকা খরচ করে ধৈর্য সহকারে যদি আপনি একটি ওয়েবসাইট ভালো অবস্থানে দাঁড় করাতে হবে। তারপর আপনার ওয়েবসাইটে যদি ভালো পরিমাণে ট্রাফিক আসে তাহলে সেখানে আপনার লিঙ্ক শেয়ার করে খুব সহজে ভালো পরিমাণে ট্রাফিক সংগ্রহ করতে পারবেন।

আরো অনেক মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন কিন্তু আমি যে মাধ্যমগুলো শেয়ার করেছি। শুধুমাত্র এই তিনটে মাধ্যমে যদি ধৈর্য সহকারে কাজ করতে পারেন তাহলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে খুব ভালো টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

শেষ কথা

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার জন্য অবশ্য ধৈর্য ধরে কাজ করতে হবে এবং মার্কেটিং সম্পর্কে ভালভাবে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। ধৈর্য ধরে প্রতিদিন এক থেকে দুই ঘন্টা সময় কাজ করে আফিলিয়েট মার্কেটিং সেক্টরে খুব ভালো করা সম্ভব। আজকে আপনাদের সাথে চেষ্টা করেছি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে হালকা ধারণা দেওয়ার। তাই আশা করি আর মনের মধ্যে কোনো প্রশ্ন থাকবে না অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি?

এরকম আরও পোস্ট পাওয়ার জন্য আমার সাইটটি ঘুরে আসার জন্য অনুরোধ রইল topicbangla

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button